(880)-2-9111260

Blog

আঁধার ভেঙ্গে জনির জয়যাত্রা

অশিক্ষার আঁধার কতটা মূর্তিমান হতে পারে? কতটা নির্মম হতে পারে মায়ের হাতে সন্তানের বিষের পেয়ালায় চুমুক? জানি বিশ্বাস করা কঠিন। কিন্তু পঞ্চগড়ের তুলার ডাঙ্গা গ্রামের ঘটেছিল এমনি এক রোমহর্ষক ঘটনা। এক রাতের কথা। অসুস্থ শিশুকে কোলে নিয়ে ছটফট করছেন মা। স্কুলে যাবার সৌভাগ্য মা’র হয়নি। সন্তানের অসুখে বিচলিত হয়ে তিনি হন্যে হয়ে খুঁজতে থাকেন ওষুধ। ঘরে রাখা কীটনাশক ওষুধ ভেবে সন্তানের মুখে তুলে দেন হতভাগ্য মা অসুস্থ সন্তানটি ঘন্টাখানেকের মধ্যে ঢলে পড়লো মৃত্যুর কোলে ঘটনাটি এলাকায় তুমুল সাড়া ফেলে আস্তে আস্তে থিতিয়ে যায় কেবল মনে রাখেন নজরুল ইসলাম জনি আমাদের আলোর অভিযাত্রী

05.-Md.-Nazrul-Islam-Jonyনজরুল ইসলাম জনি তুলার ডাঙ্গা গ্রামেরই একজন বাসিন্দা। মায়ের অশিক্ষার কারণে সন্তানের করুণ মৃত্যুর ঘটানাটি তাঁকে আমূল বদলে দেয়। তিনি জানেন কোন মা’ই সন্তানের এমন মৃত্যু চাননা। কেবল অশিক্ষার আঁধারই ঘনীভূত করতে পারে এমন বিভীষিকা। জনি সে রাতে শপথ নেন বয়স্ক শিক্ষা চালু করার। যেকোন মূল্যে শিক্ষার অগ্নি পরশে জমাট অন্ধকার চিড়ে ফেলার। প্রাথমিক অবস্থায় তিনি ১৫ জন বয়স্ক মানুষকে খোলা আকাশের নিচে পড়ানো শুরু করেন। সময় হিসেবে বেছে নেন সন্ধ্যা। খরচটাও জোটাতেন নিজের পকেট থেকে। খরচ চালাতে গিয়ে অনেক কষ্ট পোহাতে হয়েছে তাঁকে। কিন্তু জনি মুষড়ে পড়েননি। গুমোট অস্বস্তি কাটিয়ে ফেলেছেন সেই মৃত শিশুটির অসহায় মুখ স্মরণ করে। তাঁর ভাষায়, “থামার কথা ভাবলেই সে শিশুটির মুখ আর তার হতভাগ্য মায়ের আহাজারি আমাকে বলতো থেমো না।” তিনি আরো বলেন, “আমার যাত্রাপথ মসৃণ ছিলো না। এখানে ওখানে হোঁচট খেতে হয়েছে। একটা সময় বন্ধুরা এসে আমার পাশে দাঁড়িয়েছে। আস্তে আস্তে স্বপ্নের বীজটা বড় হয়েছে। খোলা আকাশের নিচ থেকে আমার পাঠশালার জায়গা হয়েছে একটা স্থায়ী ভবনে।”

মূল বয়স্ক শিক্ষাকেন্দ্রটির পাশাপাশি তিনি আরো সাতটি শিক্ষাকেন্দ্র গড়ে তুলেছেন। ইতোমধ্যে তিনি আদিবাসী ও সামাজিকভাবে অস্পৃশ্য জনগোষ্ঠীর মাঝে শিক্ষার আলো বিলানো শুরু করেছেন। পঞ্চগড়ের আমজনতা যাকে চেনে কেবল “জনির পাঠশালা” বলে। এলাকাবাসীর কাছে জনি সোনার টুকরা ছেলে। দেশের তাবৎ তরুণের সামনে এক অনুকরণীয় দৃষ্টান্ত। পাঠশালার পাশাপাশি জনি আরো কিছু সামাজিক উদ্যোগ নিয়েছেন। যেমন ভূমিকম্প বিষয়ক সচেতনতা অভিযান, শীতার্তদের মাঝে শীতবস্ত্র বিতরণ ও যৌতুক বিরোধী আন্দোলন। দেশের মূলধারার মিডিয়ায় ফলাও করে প্রচারিত হয়েছে জনির কীর্তি। এখন অনেক বড় একটা স্বপ্ন বুনছেন জনি। বয়স্কদের জন্য তিনি একটা হাসপাতাল গড়তে চান। কিছু অর্থের বন্দোবস্তও হয়েছে স্প্যানিশ বন্ধুদের মারফত। জনি বলেন সবকিছুর শুরু হয়েছিল একটা ছোট্ট স্বপ্নের মাধ্যমে। ধীরে ধীরে তা রূপ নিয়েছে মহীরুহে। হবেও না বা কেন? মানুষ যে তার স্বপ্নের সমান বড়!

মো: নজরুল ইসলাম (জনী)
এইচএসসি পাশ (এলএলবি অধ্যয়নরত)
গ্রাম: তুলারডাঙা, থানা: পঞ্চগড়
পোষ্ট: পঞ্চগড়, উপজেলা: পঞ্চগড়
জেলা: পঞ্চগড়