ঝরে পড়া শিক্ষার্থীদের জন্য কর্মমুখী শিক্ষা মিলছে
April 30, 2015
জীবনমান উন্নয়নে গ্রাম সমিতি
April 30, 2015
Show all

রাহাত হোসেন পল্লব: একজন আলোর অভিযাত্রী

মানুষ মাত্রই মানবিক গুণাবলি সম্পন্ন। সময় এবং সুযোগের অভাবে মানুষ তার মানবিকতাকে কাজে লাগাতে পারে না। তবে সবার ক্ষেত্রে এমনটা ঘটে না। এমনি একজন, যিনি মানুষের তরে নিজেকে উজাড় করে দিচ্ছেন। ‘রাহাত হোসাইন পল্লব’ খুব ছোটবেলা থেকেই মানুষের পাশে দাঁড়ানোর তাগিদ অনুভব করতেন। সেই তাগিদ থেকেই নিয়মিত অংশগ্রহণ করেন সমাজসেবামূলক বিভিন্ন রকম কর্মকান্ডে। 

সব মানুষের জীবনটাই মুখ্য। এর থেকে মুল্যবান কিছুই নেই। তাই জীবনের জয়গান গেয়ে রাহাত হোসাইন পল্লব পাশে দাঁড়িয়েছেন সমাজের সুবিধাবঞ্চিত সব শ্রেণীর মানুষের। সমাজের অধিকাংশ মানুষ তাঁদের মৌলিক চাহিদা হতে বঞ্চিত। তাঁরা সচেতন নয় তাঁদের মৌলিক অধিকার সম্পর্কে। এজন্য তিনি গড়ে তুলেছেন ‘নতুন আলোর সংঘ’ নামক একটি সংগঠন, যে সংগঠন মানুষকে সচেতন করে তুলবে তার অধিকার সম্পর্কে। মানুষকে সচেতন করার প্রাধন মাধ্যম হল শিক্ষা। এ জন্য তিনি সমাজের সকল সুবিধাবঞ্চিত শিশুদের জন্য শিক্ষা নিশ্চিত করতে ব্যবস্থা করেছেন শিক্ষা বৃত্তি। যেহেতু এই শিশুরাই আগামীদিনের ভবিষ্যৎ, তাই তাঁরা যাতে সচেতন নাগরিক হিসেবে নিজেদের গড়ে তোলে, সেজন্য হাতে নিয়েছেন সচেতনতা মূলক প্রকল্প। প্রতিটি শিশুর পরিবেশ সম্পর্কে জ্ঞান থাকবে, যত্রতত্র ময়লা আবর্জনা শুধু পরিবেশের জন্য না, শিশু স্বাস্থ্যের জন্যেও সমান হুমকি স্বরূপ। তাই দূষণ মুক্ত পরিবেশ গড়তে শিশুদের সচেতন করে যাচ্ছে সংগঠনটি। এবং এর পাশাপাশি মানুষকে আধুনিক প্রযুক্তির সাথে পরিচিত করানো এবং তথ্য সেবা তাঁদের সচেতন করার কাজটি নিরলস ভাবে করে যাচ্ছে ‘নতুন আলোর সংঘ’। প্রতিটি কাজের জন্য প্রয়োজন হয় তহবিল। এই তহবিল সংগ্রহে বিভিন্ন রকম উদ্যোগ নিয়েছেন তিনি। যেমন, ব্যাডমিন্টন ফর কম্বল, কুইজ ফর পোর ফান্ড, প্লে ফর হেল্প, এবং তার সাথে যোগ হয় ব্যক্তিগত মাসিক অনুদান। এই তহবিল আজ অনেক শিশুকে করেছে শিক্ষামুখী, মানুষকে দিয়েছে সচেতনতার বার্তা।

প্রতিটি ভালো কাজকে উৎসাহিত করতে প্রয়োজন স্বীকৃতি। রাহাত হোসেন পল্লব তার কাজের জন্য রোটারি ইন্টারন্যাশনাল ক্লাব হতে পেয়েছেন ‘ Best Interactor Award’ এর স্বীকৃতি। এমন মহতি উদ্যোগের সম্প্রসারণ ঘটুক সমাজের প্রতিটি স্তরে এটাই রাহাত হোসেনের প্রধান স্বপ্ন।